জেলার খবর

হত্যার ২ বছর পর রহস্য উদ্‌ঘাটন

অজ্ঞাত নম্বর থেকে তাঁর মুঠোফোনে এক তরুণীর কল আসে। এরপর থেকে নিয়মিত কথা হতে থাকে দুজনের। একসময় দেখা হয়, ঘনিষ্ঠতা বাড়ে। দুজন একসঙ্গে ঘোরাঘুরি করেন। একসঙ্গে বসবাস করেন ২১ দিন। একদিন গভীর রাতে নির্জন স্থানে ছুরিকাঘাত করে ওই তরুণীকে হত্যা করেন তিনি। দেড় বছর আগে ঘটনাটি ঘটে রংপুরের কাউনিয়া উপজেলায়।

ক্লুবিহীন এই হত্যাকাণ্ডের কোনো কূলকিনারা পাওয়া যাচ্ছিল না। আনুমানিক ২৫ বছর বয়সী ওই তরুণী ওই এলাকার না, শুধু এটুকুই নিশ্চিত হতে পেরেছিল পুলিশ। অজ্ঞাতনামা লাশ হিসেবেই তাঁকে দাফন করা হয়। মেয়েটির খোঁজ নিতেও কেউ কোনো দিন আসেনি পুলিশের কাছে। এ অবস্থায় মেয়েটিকে কেন হত্যা করা হয়েছে, কার সঙ্গে মেয়েটির পরিচয় ছিল এমন কোনো তথ্য পাচ্ছিল না পুলিশ। তবে দেড় বছর পর সেই হত্যা রহস্য উন্মোচন হয়েছে বলে দাবি করেছে পুলিশ।
পুলিশের ভাষ্য, হত্যার অভিযোগে কছিম উদ্দিন (৪৫) নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কছিম উদ্দিনের স্বীকারোক্তি থেকে বেরিয়ে এসেছে হত্যার কারণ। ওই ব্যক্তি জানিয়েছে, বেশ কয়েক দিন একত্রে বসবাসের পর তিনি ওই তরুণীর কাছ থেকে সটকে পড়তে চাইছিলেন। কিন্তু ওই তরুণী কিছুতেই পিছু ছাড়ছিল না। তাই ‘আপদ’ বিদায় করতে হত্যা করেন।
দুই বছর পর হত্যা রহস্য উন্মোচন হলেও হতভাগ্য সেই তরুণীর পরিচয় এখনো জানতে পারেনি পুলিশ। ওই ব্যক্তিও মেয়েটির নাম ‘রোজিনা’ ছাড়া তেমন কোনো তথ্য জানেন না। সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য ‘সম্পর্ক’ রাখবেন চিন্তা করে পরিচয় কখনো জানার চেষ্টাও করেননি।

Related Post